Logo
শিরোনাম :
বেনাপোলে ৪০টি সোনার বারসহ দু’যুবক আটক সীকাকুণ্ডে ট্রাকের ধাক্কায় পিকআপের ৩ আরোহী নিহত বেনাপোলে সীমান্ত থেকে ১০টি স্বর্ণের বার সহ আটক-১ নড়াইলের লাহুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কর্তনের অভিযোগ ভারতে পাচার ৫ বাংলাদেশী কিশোরকে হস্তান্তর নড়াইলে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামি গ্রেফতার বাঘারপাড়ার ধলগ্রাম ইউনিয়ানের সকল স্কুল কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে শুদ্ধরুপে জাতীয় সংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত প্রেসক্রিপশনের ছবি তোলায় যাবেনা বরিশালে ভন্ড ফকিরের অত্যাচারে প্রান হারালো আওলিয়াপুরের কালাম মৃধা তৃণমুল পর্যায়ের সকল মিডিয়াকে এক প্লাটফর্মে আনতে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ মিডিয়া ই-ডিরেক্টরি
নোটিশ :
দেশের সকল জেলা, থানা/উপজেলা/ইউনিয়ন এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে " দেশ পরিবর্তন " এ চীফ রিপোর্টার, স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে আগ্রহী প্রার্থীরা আজি যোগাযোগ করুন bbdnewsroom89@gmail.com

বরিশালে ভন্ড ফকিরের অত্যাচারে প্রান হারালো আওলিয়াপুরের কালাম মৃধা

গোলাম সরোয়ার মনজু / ১৫৯ বার
আপডেটের সময় : বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

বরিশাল প্রতিনিধিঃ বরিশালের বাকেরগঞ্জে ভণ্ড পীরের চিকিৎসার নামে অত্যাচারে প্রতিবন্ধী রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৮।

গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বরিশাল নগরীর রুপাতলী এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গ্রেপ্তারকৃতদের বাকেরগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাব ৮ এর পক্ষ থেকে জানায়, বাকেরগঞ্জের আউলিয়াপুরের কালাম মৃধা (৪২) নামের ব্যক্তি মানসিকভাবে দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় কথিত পীর রিয়াজউদ্দিন ফকির কালাম মৃধার চিকিৎসা শুরু করেন।

এক পর্যায়ে গত ৩১ জানুয়ারি রিয়াজ ফকির, তার চাচাতো ভাই অসীম ফকিরসহ ৪/৫ জন কালাম মৃধাকে লাঠি দিয়ে বেদম পেটান। তারা পুকুরের ঠাণ্ডা পানিতে ১০১ বার চোবান কালামকে।

এসবই করা হয় ভণ্ড পীর রিয়াজের হুকুমে জিন ছাড়ানোর নামে। তাদের অমানুষিক নির্যাতনে গুরুতর অসুস্থ হয়ে কালাম মৃধা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এসময় তার লাশ বাড়ির পাশের বাগানে ফেলে রেখে পালিয়ে যান ভণ্ড পীরসহ অন্যান্যরা।

এ ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এলাকায়। হত্যা মামলা দায়ের করা হয় মৃত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে। এর পরপরই বিষয়টির তদন্ত শুরু করে র‌্যাব। তদন্তের এক পর্যায়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ মঙ্গলবার বরিশাল নগরীর রুপাতলী এলাকায় অভিযান চালান র‌্যাবের সদস্যরা।

এসময় মৃত কাষ্ণন আলী ফকিরের ছেলে মোঃ রিয়াজউদ্দিন ফকির (৪৮), তার স্ত্রী তাসলিমা আক্তার লাকী (৪২) এবং ছেলে মোঃ তৗহিদুর রহমান (১৮)কে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা সবাই বাকেরগঞ্জের আউলিয়াপুরের বাসিন্দা।

তারা কালাম মৃধা হত্যার ঘটনায় নিজেদের জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। পরবর্তীতে তাদের বাকেরগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করেছেন র‌্যাবের সদস্যরা।

র‌্যাব জানায়, রিয়াজউদ্দিন ফকিরের দাদা মৃত ফকির আঃ রহমান মুন্সী ওরফে কালুসা দেওয়ান প্রথম জীবনে মাদ্রাসার শিক্ষকতা করতেন এবং মুন্সী পদবী গ্রহণ করেন।

পরবর্তীতে তিনি ফরিদপুরের দত্তপাড়ায় মোহনসা দেওয়ানের মুরিদ হয়ে এলাকায় এসে দরগাহ খোলেন। তার মৃত্যুর পর রিয়াজের চাচা সাম দেওয়ান এই পীরদানী চালিয়ে যান এবং নাম দেন দেওয়ান মাজার যা বরিশাল নগরীর কাউনিয়ায় অবস্থিত।

সাম দেওয়ান মারা যাওয়ার পর তার ছেলে খোকন দেওয়ান পীরদানী চালু রাখেন। খোকন দেওয়ান মারা যাওয়ার পর গত সাড়ে ৪ বছর ধরে বাকেরগঞ্জের আওলিয়াপুরে রিয়াজ পীরদানী ব্যবসা পরিচালনা করছিলেন।

চিকিৎসার নামে ভুক্তভোগীদের কাছে থেকে নগদ অর্থ ছাড়াও চাল, ছাগল, গরু, মুরগীসহ অন্যান্য জিনিষপত্র আদায় করতেন কথিত পীর রিয়াজউদ্দিন ফকির।


এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com